ভারত বিকাশ পরিষদের উদ্যোগে "গুরু বন্দন ও ছাত্র অভিনন্দন" অনুষ্ঠান প্রেস ক্লাবে


 নিজস্ব প্রতিনিধিআগরতলা০১ অক্টোবর || সর্বভারতীয় স্তরে ভারত বিকাশ পরিষদের ভূমিকা অপরিসীম। মূলত ভারতীয় কৃষ্টিপরম্পরা সহসৃজন মননকে রক্ষার তাগিদে জনকল্যানে সর্বদাই ব্রতী ভারত বিকাশ পরিষদ।

পরম্পরা  সংস্কৃতি ব্যাতিত কোন জাতির নিপুণ উন্নয়ন অসম্ভব। প্রকৃত চিত্ত শুদ্ধি  বিকশিত মননের অন্যতম উজ্জ্বল আগামীর আকাঙ্খায়"গুরু বন্দন  ছাত্র অভিনন্দনশীর্ষক বাৎসরিক অনুষ্ঠান উপস্থাপিত করে ভারত বিকাশ পরিষদ। এদিন আগরতলা প্রেস ক্লাবে গুরু শিষ্যেরঅন্যতম পরম্পরায় বিশ্বাসী ভারত বিকাশ পরিষদের এই আয়োজনে রাজ্যের পাঁচজন বিশিষ্ট ব্যাক্তিত্বকে গুরু হিসেবে সম্মাননা দেয়া হয়।পাশাপাশি প্রত্যেক গুরুর সাথে দুইজন অনন্য শিষ্য  শিষ্যাকে মেধা সম্মাননা প্রদান করা হয়। যে গুরু এবং শিষ্য-শিষ্যাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেনতারা হলেন ক্রীড়া গুরু বিশ্বেশ্বর নন্দীসাথে ছিলেন জিমনাস্ট দীপা কর্মকারশ্রীপর্ণা দেবনাথকেন্দ্রীয় সংস্কৃত মহাবিদ্যালয়ের নির্দেশক অধ্যাপকপ্রভাত কুমার মহাপাত্রসাথে ছিলেন রিতিক রাজগোপল কৃষ্ণ দাসবিজয় কুমার বালিকা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা অনামিকাদেববর্মাসাথে ছিলেন সাথি দেবনাথসংহিতা সিনহাবিশিষ্ট সঙ্গীত গুরু রাজীব চ্যাটার্জিসাথে ছিলেন নবমিতা সাহাবৈভব প্রতীম দত্তবিশিষ্ট নৃত্য গুরু চিন্ময় দাসসাথে ছিলেন যোশি দেববর্মাশান্তা দাস।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট লেখকগবেষক  সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ডঃ আশিস কুমার বৈদ্য  রাজ্যের প্রথিতযশাসাংবাদিক  সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অমিত ভৌমিক প্রমুখ।

Previous Post Next Post